আশ্রয়কেন্দ্রে খাবার এবং পানি সংকট দুর্ভোগ চরমে

In - May 29, 2017

ঘূর্ণিঝড় মোরা  আতঙ্কের মধ্যে আশ্রয়কেন্দ্র ও বিভিন্ন হোটেলে আশ্রয় নিয়েছেন অসংখ্য মানুষ। এসব জায়গায় খাবার ও বিশুদ্ধ পানির সংকটে চরম দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে আসা মানুষের চোখে-মুখে অসহায়ত্বের ছাপ।



শিশু- কিশোরেরা ভয়ে কান্নাকাটি করছে। আশ্রয় নেওয়া অনেকের কাছেই খাবার নেই। বিশুদ্ধ পানিরও যথেষ্ট সংকট রয়েছে। কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার সেন্টমার্টিন দ্বীপে খাবার ও বিশুদ্ধ পানির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। দ্বীপের ১০ শয্যার একটি হাসপাতালে প্রায় ১ হাজার ২০০ মানুষ আশ্রয় নিয়েছে। সেখানেও খাবার ও বিশুদ্ধ পানির কোনো ব্যবস্থাই নেই। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছে এখানে আশ্রয় নেওয়া এসব মানুষ। সেন্টমার্টিন বাজার পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক হাফেজ ওয়াসিম জানান, দ্বীপের একমাত্র সাইক্লোন সেন্টারটি জরাজীর্ণ। তাই ১০ শয্যার হাসপাতালে ১ হাজার ২০০ মানুষ আশ্রয় নিয়েছে।



এছাড়া দ্বীপের সেনচুর, অবকাশ, ব্লু মেরিন হোটেল, জেলা পরিষদ ডাকবাংলো ও আবহাওয়া অফিসে ৪-৫ হাজার মানুষ আশ্রয় নিয়েছে। তবে সরকারি হাসপাতালটিতে খাবার ও বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা না থাকায় আশ্রয় নেওয়া এসব মানুষকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য হাবিবুর রহমান জানান, এই দ্বীপে বসবাসরত লোকজনের জন্য খাবার ও বিশুদ্ধ পানি টেকনাফ থেকে আনতে হয়। হঠাৎ করে সিগন্যাল (বিপৎসংকেত) হওয়ায় তা অনেকে মজুত করতে পারেননি। তাই এখানে খাদ্যের চরম সংকট দেখা দিয়েছে।

Googlepluspint

    Copy Sms

  • আশ্রয়কেন্দ্রে খাবার এবং পানি সংকট দুর্ভোগ চরমে

  • Whatsapp
Powered by Blogger.